Buy this theme? Call now 01710441771
Welcome To Abc24.GA
.Mar 18, 2016

ভয়ংকর বাসর, অতঃপর..



বাসর রাতে বউয়ের থেকে এমন কথাআশা করেনি আলভি। আসলে অালভিওবিয়েটা করতে চায়নি। কিন্তুপরিবারের থেকে এক প্রকার চাপেবিয়েটা করতে হল তাকে।।।।।
"মা আমি বিয়ে করবোনা "
" কেন করবি না করতে হবেই তোকে "
" না, তোমরা আমাকে কেন মেরেফেলতে চাইছো? "
" কি সব অলুক্ষনে কথা বলছিস? "
" ঠিকই তো বিয়ে আর মরার মধ্যেপার্থক্য কি? "
" কিছু শুনতে চাইনা "
" আমি বিয়ে করবোনা মা, এর থেকেমরে যাওয়া ভালো "
।।।।অনেক চেষ্টা করেও বিয়েটাথামাতে পারলো নাহ আলভি। যেমেয়ের সাথে বিয়ে হবে তাকেঅনেক কথা বলেছে যে তারগার্লফ্রেন্ড আছে , আলভি নেশা করে,আরো অনেক কিছু। কিন্তু মেয়েটাতেমন কিছুই করলো না। বরং বেহায়ারমত বিয়ে করতে রাজি হয়ে গেল। তাইএকটু রেগে আছে আলভি। অতঃপর বিয়েটা হয়ে গেল। তাই আর রাগ করেথাকতে পারলো না, বুকের মাঝেঅনেক গুলো স্বপ্ন রয়েছে তার বউ কে নিয়ে।।।।।
জীবনে কোনো মেয়েকে ছুয়ে পর্যন্তদেখেনি, কোনো মেয়েকেভালবাসি বলেনি, এমন কি মেয়েদেরসাথে মেশেও নি। কারন সব ভালবাসা বউয়ের জন্য রেখেছে সে। যা হবে সববিয়ের পর। নিজের প্রতিদিনেরডাইরি টার মধ্যে নিজের হবু বউ কেনিয়ে অনেক কিছু লেখা। কারন সেতো কখনও প্রেম করেনি, তাই তারভালবাসার অনুভুতি গুলো ডাইরিতেলেখা। যা তার বউ কে নিয়ে জীবনটা উপভোগ করবে।।।।।

অতঃপর বাসর রাত।
খুব ভয়ে ভয়ে প্রবেশকরলো আলভি। এই মুহুর্তটা কেমন যেনভয়ংকর লাগছে তার। বুকটা কেমন যেনকরছে। যদিও বিয়ের কিছুদিন আগেথেকেই হবু বউয়ের সাথে কথা বলেছিলবন্ধুর মতই। আর মেয়েটাও বন্ধুর মতই একদমফ্রী হয়ে গিয়েছিল আলভির সাথে।।।।।প্রতিটা দম্পতির মতই তাদের বাসর রাতটি কাটলো খুব আনন্দের মাঝেই।

কিন্তু...।।"

আদিবা তোমাকে একটা প্রশ্ন করি? "
" কি প্রশ্ন? "
" বলো সঠিক উত্তর দিবে? "
" হ্যা তুমি বলেই দেখে "
" ইয়ে না মানে "
" হুম বলো? "
" তুমি "
" হুম? "
" বিয়ের আগে কারো সাথে তোমারফিজিকাল রিলেশান ছিলো? "
" এসব কি বলছো আলভি? "
" না থাক, আমি তোমাকে বিশ্বাসকরি "।
।।।এবার ভাবলো আলভি কে সত্যিকথাটা বলা উচিত। তাই নিজেরচোখটা বন্ধ করলো। কারন আলভিতাকে সন্দেহ করছে, আবার বিশ্বাসওকরে তাই সত্যি টাই বলে দেয়া উচিত।।।।।
" আলভি তোমাকে সত্যি টা বললে,আমাকে ভুল বুঝবে না বলো? "
" ভুল বুঝবো কেন? "
" না কিছুনা, মানে "
" তোমার সমস্যা হলে বলোনা "
" একটা ছেলে আমাকে খুব ভালবাসত।আমিও তাকে খুব ভালবাসতাম। কিন্তুমাঝে মাঝে সে আমাকে এড়িয়েচলতো। যেটা আমার খুব খারাপ লাগত।একদিন সে আমাকে তার বাড়িতেডাকে, আমি শুধু আমার ভালবাসারক্ষার্থে গিয়েছিলাম। আর সে আমারসাথে... "
আলভি চুপ হয়ে কথা গুলো শুনলো।নিজেকে কেন যেন ভারী মনে হচ্ছেতার। এমন সময় আদিবা তার হাত দুটোধরে বলল...।।।।"
বিশ্বাস করো আমি ভুল করেছি, ওরকথা শোনা উচিত হয়নি, কারন সেআমাকে শুধুই ব্যবহার করেছিল, আরো অনেক বার এমন হয়েছিল, তারপর আমাকে ছেড়েই অন্য কারো হয়েগিয়েছিল সে "
।।কোনো কথা বলল না আলভি। তার মনেপড়ে যাচ্ছে তার বন্ধুদের কথা।কলেজে থাকতে মেয়েরা তার সাথেমিশতে চাইত কিন্তু সে এড়িয়ে চলত।তার অনেক বন্ধুরাই ফিজিকালরিলেশানে জড়িত ছিল। তাই যখনআলভি কে বলত, তখনি সে বলত *আমারসব কিছু আমার বউয়ের জন্য, অামারভালবাসা, আমার ফিলিংস আমারপৃথিবী আমার সব, আর আমি যেমনকোনো মেয়ের ক্ষতি করিনি, আমারবউও আমার মতই হবে*
।।।।।হটাৎ আদিবার ডাকে নিজেরঅবস্থানে ফিরে এলো সে।।"
বাবু আমাকে ক্ষমা করে দাও "
" হাহাহা ধ্যাত আমি কিছু মনেকরিনি"
" সত্যি বাবু? তুমি অভিমান করে বলছোনা তো? "
" ধ্যাত বোকা মেয়ে কিছু হয়নি বললামতো। তুমি ঘুমাও "
" তুমি ঘুমাবেনা? "
" পরে ঘুমাবো আমি "
" আচ্ছা বাবু আমি তোমার বুকে ঘুমাই?"
" কেন? "
" ইচ্ছে করছে তাই "
" আচ্ছা "

রাত প্রায়ই ৪ টা বাজে।

আদিবাঘুমিয়ে গেছে। তাকে বুক থেকেনামিয়ে, পাশে ভাল করে শুইয়েদিলো। আলভি উঠে, আলমারী থেকেতার লেখা ডাইরি গুলো বের করলো।এবং বিছানায় আলভি যেখানে শুয়েছিল সেখানে রাখলো। ঠিক আদিবারপাশে। অনেক সময় ধরে আদিবার দিকেভালবাসার নজরে তাকিয়ে, একটামুচকি হাসি দিয়ে আদিবার কপালেএকটা কিস করে। নিজের রুম থেকে বেরহয়ে একে একে বাবা মা এবং বড়ভাইয়ার রুমে গিয়ে একটু করেতাকিয়ে, ছাদের দিকে সিড়ি বেয়েউঠতে থাকলো আলভি।।

একটু পরেই আজান দিবে। যা করার এখনইকরতে হবে। দুর আকাশে চাঁদটির দিকেতাকিয়ে, নিচে ঝাপিয়ে পড়লো সে।মৃত্যুর শেষ মুহুর্তেও সে ওই চাঁদটির দিকেতাকিয়ে ছিল।।।
সকালে ঘুম থেকে উঠে অাদিবাদেখলো তার পাশে আলভি নেই। কেমনযেন চিৎকার, কান্নার শব্দ ভেসেআসতেছে। সে ভাবলো হয়ত কিছুই নয়।আলভি হয়ত বন্ধুদের সাথে আড্ডাদিচ্ছে, নিশ্চয়ই বন্ধুদের সাথে বাসররাতে মুহুর্ত শেয়ার করতেছে।।।ফ্রেস হয়ে ঘরে সবাইকে খুজতেলাগলো। কেউ রুমে নেই। একটু পর আবারসেই কান্নার অাওয়াজ বারান্দাদিয়ে নিজে তাকিয়ে সে যাদেখলো তা সে দেখার জন্য প্রস্ততছিল না। কোনো রকম সিড়ি বেয়েহোচট খেয়ে খেয়ে নিচে নামলো।আলভি কে এভাবে রক্তাক্ত অবস্থায়দেখে এক প্রকার অজ্ঞান হয়েই গেল।আজ অনেকটা দিন খানিক পর সম্পূর্ন রুপেজ্ঞান ফিরলো আদিবার। সুস্থ হলে তারশশুড় শাশুড়ি তাকে নিয়ে আসলো।।।।।সেই ঘরটির ভেতর যেতে কেন যেন আলভির উপস্থিতি উপলব্ধি করলো সে। কিন্তু আলভি কোথাও নেই। বিছানারঠিক পাশে আলভির খুব বড় করে ছবিটারদিকে কান্না করতে লাগলো আদিবা।এমন সময় বিছানার সেই ডাইরি গুলোহাতে নিলো।।।।।

--তারিখঃ ১৪/২/২০১৫.আজ আমার এক বন্ধু বলল, সে নাকি তারগার্লফ্রেন্ডদের কে ব্যবহার করে।আমাকেও খুব খারাপ খারাপ বুদ্ধিদিলো, কিন্তু আমি ওর মত হতে পারবোনা, কারন আমি যেমন হবো আমার বউওতেমন হবে।।।
(নিজের চোখের জল টা মুছে, অন্যপৃষ্ঠায় চোখ দিলো আদিবা)...।।
--তারিখঃ ২-৩-২০১৫.কাল আমার বিয়ে অনেক চেষ্টা করেওআটকাতে পারালাম না। অবশ্যমেয়েটা আই মিন আমার বউটা খুবভালো। বন্ধুরা যখন বলত ওদেরগার্লফ্রেন্ডের হাত ধরে হেটেছে,কিস করছে, একসাথে রিক্সায় ঘুরেছে,আরো খুব মজা করছে তখন আমারও ইচ্ছেহত। কিন্তু ভাবতাম সব হবে বিয়ের পরবউয়ের সাথে। কারন ওদের গার্লফ্রেন্ডগুলো ওদের ছাড়বে, কিন্তু আমার বউতো আমারই, সে আমাকে কখনও ছেড়েযাবেনা। তাই যা প্রেম করবো সববউয়ের সাথে।।।।।আরো অনেক লেখা আলভির স্বপ্ন গুলোনিয়ে। যা পড়তে পড়তে আদিবারচোখে জল চলে আসলো, এবং কান্নাকরতে করতে বলল....
" তুমি কেন এমন করলে আলভি, আমিতোমার স্বপ্ন গুলোকে ভেঙ্গেদিলাম, মরে যাবার তো আমার কথা তাহলে তুমি কেন? কেন তুমি? নাহ তুমিযদি পারো তাহলে আমিও পারবো "
।।।।সন্ধ্যার সময় ছাদে গিয়ে, অঝোরেকাদতে লাগলো আদিবা। ঠিক যখনইছাদের রেলিং পা দিয়ে উঠতেগেলো। তখন কেউ তার হাত চেপেধরলো। তাই সে আর উঠতে পারলো না।।।।।"একি করতে যাচ্ছো তুমি?
" (আলভিরআত্বা)" আমি তোমার কাছে যাবো বাবু "
" নাহ তা হয়না "
" কেন তুমি পারলে আমি পারিনাকেন?"
" কারন আমি তোমার মাঝে বাচতেচাই "
" নাহ আমি যাবোই তোমার কাছে "
" তুমি কি আমাকে দুরে সরিয়ে দিতেচাচ্ছো আদিবা? "
" মানে কি বলছো বাবু? "
" আমি চাই তুমি বেচে থাকো,আমিতোমার মাঝে বেচে থাকতে চাই,তোমার মাঝেই নিজেকে রাখতেচাই আদিবা, তাই তুমি প্লিজ এমনকরোনা "
" আমি তোমাকে খুব ভালবাসি আলভি,খুব ভালবাসি "
" এটাই তো, তুমি আমাকে খুবভালবাসো, তাই তো বলছি তুমি বেচেথাকো, কারন তোমার মাঝেই তোআমি বেচে থাকতে চাই। যাও ঘরেফিরে যাও আমি আবার আসবো "
" সত্যি তুমি আসবে? "
" সত্যি আসবো তুমি আমার অপেক্ষাকরো যাও "
।।আদিবা আলভির কথা গুলো মেনেনিলো, সেদিনের পর থেকে কেমনযেন পাগলী হয়ে গেলো আদিবা।নিজেই নিজের সাথে কথা বলে,আবার বলে "ওই তো আলভি, আমিআসছি, তুমি দাড়াও" কিন্তু কাছেযেতেই হারিয়ে ফেলে আলভি কে।**

(বিঃদ্রঃ গল্পের এমন পরিনতির জন্য, শুধুআধুনিক নষ্টামী দ্বায়ী। এক্ষেত্রেমেয়েদের বোঝা উচিত ৪-৫ বছরভালবাসার কাছে নিজেকেবিকিয়ে নয়, বরং যার সাথে সারাটাজীবন কাটাবে শত শত বছর, তার কাছেইনিজেকে বিকিয়ে দিতে হয়।।কিন্তু নাহ বর্তমানে তো ১০ দিনেরভালবাসাতে ই এমন হয়, একটা ছেলেযদি ১০ দিনেই সব পেয়ে যায়, তাহলে১০ বছর তো দুরে থাক ১০ মিনিট ওকাটাবে কেন? এক্ষেত্রে শুধু ছেলেরদোষ দিবেন নাহ? আপনি মেয়েই বা কেমন? - আপনারা বোঝেন না? আর হ্যাকাউকে কষ্ট দেয়ার জন্য বলিনি, আমারকথায় কেউ কষ্ট পেলে ছোট মনে করেক্ষমা করে দিবেন )~~