Buy this theme? Call now 01710441771
Welcome To Abc24.GA
.May 9, 2016

"বাড়ন্ত নতুন অধ্যায়"


জবটা পাওয়ার পর
আম্মু যেন ধৈর্যের
শিকল ছিঁড়ে ফেললেন,
উপচে পড়ে লাগলেন
পরিবারের সদস্য
বৃদ্ধির জন্য, জব
পাওয়ার আগেই বিয়ে
বিয়ে বলে খুব
জ্বালাতেন, কিন্তু
আমি বেকার শব্দটি
উপস্থাপন করে অলখে
পালিয়ে বেড়াতাম,
জব কনর্ফাম হওয়ার
সাথে সাথে আম্মুর
মেয়ে দেখা শুরু,
কয়েকদিনের মধ্যে
উনার পছন্দের মেয়ে
ঠিক করে ফেললেন,
আমি ছোটবেলা
থেকেই আম্মুর খুব
অনুগত, উনার পছন্দের
সম্মান করতে গিয়ে
কোনদিন "প্রেম" বা
"লাভ ম্যারেজ" শব্দ
মাথায় আনিনি.
তবে গল্প পড়া ও লিখার
মাধ্যমে "ভালবাসা"
শব্দটির সাথে খুব ভাল
ভাবে পরিচিত..
.
অবশেষে,
পারিবারিক
আলোচনার মাধ্যমে
নির্ধারিত দিনে
আমাদের শুভকার্য
সম্পন্ন হয়,
আমার মহারাণীর নাম
"তানিশা"
অনার্স ১ম বর্ষের
ছাত্রী,
বিয়ের পূর্বে কল্পিত
মহারাণী থেকে
তানিশার গুণ,স্বভাব
অনেকখানি অগ্রসর,
একটু সামান্য রাগী
আর অনেকখানি
লাজুক হলেও কেয়ার
আর ভালবাসার মাঝে
সর্বদা বুকে আগলে
রাখে আমাকে, আসলে
রাগী মেয়েরা
স্বাভাবিকভাবে একটু
বেশি ভালবাসতে
জানে, দিন যত বেড়ে
চলেছে ভালবাসার
মাত্রাটাও বৃদ্ধি
পাচ্ছে, আজ আমাদের
বিয়ের ৮ মাস হতে
চলল, প্রতিদিন
তানিশা আমার আগে
ঘুম থেকে উঠেই একটা
উষ্ণ আদর দেয়,তারপর
ফ্রেশ হয়ে এসে পানির
ঝাটকায় ঘুম ভাঙ্গায়,
আজ ঘুমটা একটু বেশি
হয়ে গেল, নাড়াচাড়া
দিয়ে তানিশা বলে
উঠল "এ যে আম্মুর
একমাত্র আদুরে ছেলে,
আজান দিছে,উঠেন,
ফ্রেশ হয়ে নামাজ
পড়তে যান."
আম্মুর পছন্দের
ধার্মিক লক্ষ্মী
বউটার কথা কখনো
ফেলতে পারি না, তাই
এখন ৫ ওয়াক্ত নামাজ
পড়ি, কিন্তু নামাজ
শেষে ঘুমানোর
অভ্যাসটা বাদ দিতে
পারলাম না,
তাই মসজিদ থেকে
বাসায় এসে আবার ঘুম,,
>এ যে মহারাজ ওঠেন,
অফিসে যেতে হবে না
(তানিশা)
বুঝছি ঘুমের
স্থিতিকাল সম্পন্ন
>উঠতে পারছি না,
একটু টেনে তুলে দাও না
(আমি)
লক্ষ্মী বউটা কাছে
আসতেই আমি
হাতখানা ধরে আলতো
করে বিছানায় শুইয়ে
দিলাম
>কি হল মহারাজ?
>তোমাকে জড়িয়ে ধরে
শুয়ে থাকতে খুব ইচ্ছে
করছে
>তবে রাতে কাকে
জড়িয়ে ধরে ঘুমালে?
>তোমাকে
>তখন হয় না?
>নাহ, একটুও না
>কেন গো?
>কারণ, আমার
মহারাণীর ছোঁয়াগুলো
এত তৃপ্তিময়, যার
মাঝে পৃথিবীর সব সুখ
খুঁজে পাই, যার প্রতিটি
ছোঁয়াতে সুখ পাথারে গা
ভাসিয়ে দেই এবং
আবার পাথারে ভেসে
যেতে চাই
>এই পাগল, যদি আম্মু
চলে আসে?
>আসবে না গো বাবুই
পাখি
>১০ মিনিট তো হয়ে
গেল, এবার ছাড় প্লিজ,
চুলায় রান্না বসানো
>চলে যাবে, আচ্ছা যাও
(অভিমানী কণ্ঠ)
>রাগ করেনা বাবুটা,
আমি তো সবসময় শুধুই
তোমার.
.
বেড থেকে ওঠে, গোসল
করে অফিসের জন্য
রেডি হলাম, খাবার রুম
থেকে তানিশার
ডাকাডাকি শুরু,
বিয়ের পর নিজ হাতে
খাওয়া উভয়জনই ভুলে
গেছি,
আম্মু পাশে না থাকলে
একজন অন্যজনকে
খাইয়ে দেই,
খাওয়া শেষে ব্লেজার
আর টাই পরিয়ে দেয়
তানিশা, এ দুইটা
পোশাকের উপর হাত
দেয়ার আমার কোন
অধিকার নেই, অফিসে
যাওয়ার আগে পরিয়ে
দিবে আর আসলে ও
খুলে দিবে,
আমার থেকে একটু খাট
হওয়ায় আমার পায়ের
উপর দাঁড়িয়ে পরিয়ে
দেয়,
অবশ্য প্রতিদিন এর
জন্য একটা গিফটও
পায়.
,
>অফিসের কোন মেয়ে
কলিগের দিকে
তাকাবে না (তানিশা)
>তাকাইনি তো
>জানি, কিন্তু ভুল
করেও তাকাবে না
>আমার ঘরে পূর্ণিমার
চাঁদ থাকতে ওদের
দিকে তাকাব কেন?
>হুম হয়েছে। পৌঁছে,
লাঞ্চ টাইমে এবং
ফেরার পূর্বে কল
করবে
>আচ্ছা,, মহারাণীর
জন্য কি আনতে হবে?
>কিচ্ছু না, আমার
মহারাজ সুস্থভাবে
ফিরে আসলেই আমি
সব পাব
.
চলে যাই অফিসে,
যাওয়ার পূর্ব মূহুর্তে
হাতে কপালে দুটি
আদর দেয় মহারাণী,
আদরগুলো নাকি
আমাকে বিপদ থেকে
রক্ষা করবে,
লক্ষ্মী বউটার
পাগলামী, আদর,
ভালবাসা আর শাসনে
বেড়ে চলেছে আমার
জীবন ||
.
ভালবাসি তোমায়
লক্ষ্মী বউ,
অনেক বেশি