Buy this theme? Call now 01710441771
Welcome To Abc24.GA
.Jan 25, 2018

আপনার জন্ম তারিখ ০১-০১-১৯৯৮ এর পরে? NID এর নেট কপি বের করতে পারছেন না? দেখুন কিভাবে খুব সহজেই আপনার আইডির নেট কপি বের করবেন।



আসসালামু আলাইকুম, সবাই কেমন আছেন?আমি আজকে আপনাদের সামনে কি নিয়ে পোস্ট করবো তা হয়তো টাইটেল দেখেই বুঝে গেছেন আপনারা।

হ্যা কিভাবে ফরম নম্বর ছাড়াই NID নম্বর দিয়ে খুব সহজেই আপনার স্মার্ট কার্ডের নেট কপি বের করবেন তা নিয়েই পোস্ট করতে যাচ্ছি।
যাদের জন্ম তারিখ ০১-০১-১৯৯৮ এর পরে তারা ফরম নম্বর দিয়ে নেট কপি বের করতে না পেরে চুপ করে বসে আছেন কবে হাতে পাবেন সেই ভরসায়।
কিন্তু আজকের এই পোস্ট টি মনোযোগ দিয়ে পড়লে আপনিও এখনই পাবেন কার্ড আর নিজের কার্ডের মাধ্যমেই সিম কেনা থেকে শুরু করে সব কাজে ব্যবহার করতে পারবেন।
তো চলুন:
প্রথমে আপনি যেটা করবেন সেটা হলো আপনাকে যে একটা রশিদ দেওয়া হয়েছিলো সেই রশিদে একটা ফরম নম্বর দেওয়া আছে সেই ফরম নম্বরটি বা আপনার সেই রশিদ টি, সাথে আপনার জন্ম তারিখ এবং তার সাথে আপনার পিতা মাতার আইডি কার্ড আপনার সামনে নিয়ে বসে পড়ুন। তারপর আপনার ফোন থেকে ১০৫ এ কল করুন (রবি-বৃহস্পতি বার সকাল ৯ টা থেকে বিকাল ৫ টা পর্যন্ত)। সাধারনত সিম কোম্পানির কাস্টমার কেয়ারে যেভাবে কথা বলুন আরকি। কল দেওয়ার পর অপেক্ষা করুন সেখান থেকে আপনাকে অপারেটরের সাথে সরাসরি কথা বলতে ৯ চাপতে বলবে। আপনি ৯ চেপে কল ধরার অপেক্ষায় থাকুন, একটু দেরি হতে পারে। ধরলে আপনি বলুন যে আমার একটি NID নম্বর জানার প্রয়োজন। তারপর আপনাকে ফরম নম্বর বলতে বলবে, আপনি আপনার রশিদে থাকা ফরম নম্বরটি ঝটপট বলে ফেলুন। তারপর আপনাকে কিছু প্রশ্ন করবে, হতে পারে সেটা আপনার জন্ম তারিখ, পিতার বা মাতার আইডি নম্বর। আপনি ঝটপট উত্তর দিয়ে যাবেন, বেশি দেরি করবেন তো কল কেটে দিবে। (এইজন্যই এইগুলা আগেই নিয়ে বসতে বলেছি) এখন NID নম্বর লিখতে বলবে আপনি লিখে রাখুন। (কল রেকর্ডও চালু রাখতে পারেন)
তারপর এই লিংকে ক্লিক করুন। এখানে যাওয়ার পর নিচের মত দেখতে পাবেন, তারপর “অন্যান্য তথ্য” অপসনটিতে ক্লিক করুন

তারপর নিচের মত দেখতে পাবেন, আপনার জন্ম তারিখ যদি ০১-০১-১৯৯৮ এর আগে হয়ে থাকে তাহলে এখান থেকে ভোটার তথ্য দেখতে পারবেন নচেৎ পারবেন না।

যেহেতু আপনার জন্ম তারিখ ০১-০১-১৯৯৮ এর পরে তাই “রেজিষ্টার” অপসনটিতে ক্লিক করুন

তারপর নিচের মত আসলে “রেজিষ্ট্রেশন ফরম পূরন করতে চাই” এখানে ক্লিক করুন

এখন নিচের মত রেজিষ্ট্রেশন ফরম আসলে আপনি আপনার লিখে রাখা এন.আই.ডি নম্বর, জন্ম তারিখ ( জন্ম তারিখে ক্লিক করার পরে পেজের ডান দিকে নিচের দিকে জন্ম তারিখ দেওয়ার অপসন পাবেন), মোবাইলফোন নম্বর ( বর্তমানে চালু আছে আপনার এমন নম্বর), আপনার ইমেইল এড্রেস দিন।
আপনার বর্তমান ঠিকানা এবং স্থায়ী ঠিকানার বিভাগ, জেলা, উপজেলা দিন
তারপর আপনার পছন্দমত পাসওয়ার্ড দিন (অবশ্যই অক্ষর, সংখ্যা মিলিয়ে দিবেন)
“পুনরায় পাসওয়ার্ড” এ আবার একই পাসওয়ার্ড দিয়ে ক্যাপচা টা পুরন করে “রেজিষ্টার” এ ক্লিক করুন।

এখন আপনাকে পরবর্তি পেজে নিয়ে যাবে এবং আপনার মোবাইল নাম্বারে একটা OTP কোড আসবে, আপনি কোডটি বসিয়ে লগিন করুন। এখন যদি নিচের মত লগিন পেজ আসে তাহলে আবার আপনার এন.আই.ডি নম্বর, জন্ম তারিখ, পাসওয়ার্ড দিয়ে ক্যাপচা পুরন করে “সামনে” তে ক্লিক করুন

তারপর মোবাইলে আবারো OTP কোড আসবে, আপনি তা দিয়ে “লগিন” এ ক্লিক করুন। (মোট কথা আপনি যতবার লগিন করবেন ততবারই OTP কোড আসবে)

তারপর আপনার ছবি সহ NID কার্ড দেখতে পাবেন। (আমি সবকিছু ব্লার করেছি)। আপনি তা ডাউনলোড করার জন্য নিচে দেখানো “পরিচয় বিবরণী” অপসনে ক্লিক করুন।

তারপরই দেখবেন provisional card নামের ১০০-১৫০ কেবির একটা পিডিএফ ফাইল ডাউনলোড হয়ে যাবে।

এটাই আপনার সাধের স্মার্ট কার্ড!! এখন কোনো কম্পিউটার দোকানে গিয়ে ফাইলটা তাকে দিয়ে print করে বের করে দিতে বলুন। ৫-১০ টাকা নিবে।
এখন আপনি যদি এটা দিয়ে সিম কিনতে চান তাহলে এটাকে ফটো কপি করে নিতে পারেন।

অনেক ভালো করে বোঝানোর চেস্টা করেছি, জানিনা পেরেছি কিনা। না বুঝলে কমেন্ট করে জানাবেন।
তারপরও কারো কোনো বুঝতে সমস্যা হলে আমাকে ফেসবুকে বলতে পারেন যতটুকু পারি সাহায্য করার চেস্টা করবো।