Buy this theme? Call now 01710441771
Welcome To Abc24.GA
.Aug 8, 2018

নষ্ট হয়ে যাওয়া অথবা পুরোনো কোরআন শরীফ কি করবেন?

আল-কোরআন মহাপবিত্র গ্রন্থ্। যার সম্মান এবং মর্যাদা অতুলনীয়। যা এই পৃথিবীর সর্বশ্রেষ্ট গ্রন্থ। আমরা কোরআন শরীফ পড়তে পড়তে বা অনেক সময় না পড়ার কারণে নষ্ট বা পুরনো হয়ে যায়। অনেক সময় দেখা যায় আমরা একটি থাকতেই আরেকটি কিনে আনি। যার ফলে সবাই নতুনটাই সবাই ব্যবহার করে। ফলে ব্যবহার না করায় সেই কুরআন শরীফ আর পড়ার উপযোগী থাকে না।

অনেক সময় মনে হয় কুরআন শরীফ এভাবে রাখলে কোরআনের অবমাননা হতে পারে তবে পুরোনো কোরআন শরীফ কি করবেন? এমন প্রশ্ন অনেকের মনেই আসে। চলুন জেনে নেই এ বিষয়ে আলেমরা কি বলে।

এক প্রশ্নের উত্তরে বিশিষ্ট আলেম ড. মুহাম্মদ সাইফুল্লাহ বলেন, অনেক সময় দেখা যায়, কোরআন শরীফ বেশি দিন থাকতে থাকতে পাতাগুলো নষ্ট হয়ে যায় এবং পড়ার যোগ্য থাকে না। যদি এমন হয় তাহলে উত্তম হচ্ছে একটা ভালো জায়গা বেছে মাটিতে কোরআন শরিফটি পুঁতে ফেলা।

যদি এটি করতে সক্ষম না হন তাহলে পানিতেও আপনি ফেলে দিতে পারেন। যদি আপনি মনে করেন যে, মাটিতে রাখলে কেউ হয়তো উঠিয়ে ফেলতে পারে অথবা কোনোভাবে কোরআনের অবমাননা হতে পারে, সেক্ষেত্রে কোরআন পুড়িয়ে ফেলে আপনি মাটিতে পুঁতে ফেলতে পারেন, এটি জায়েজ রয়েছে।

ওসমান ইবনে আফফান (রা.) যখন কোরআনে কারিমের মুসহাবগুলো একত্র করলেন তখন যেগুলো অতিরিক্ত রয়ে গেল, দেখলেন যে, এগুলো আর কাজে লাগবে না, তখন সবগুলোকে একসঙ্গে করে পুড়িযে ফেললেন। তারপর মাটিতে পুঁতে দিলেন। ওসমানের (রা.) আমল থেকে এটি আমরা জানতে পেরেছি, সুতরাং এটি করা জায়েজ রয়েছে।

কিন্তু কোরআনে কারিমের যাতে কোনোভাবে অবমাননা না হয়, এটা ডাস্টবিনে অথবা রাস্তায় ফেলা যাবে না অথবা এমন জায়গায় নিক্ষেপ করা যাবে না যেখানে কোরআনে কারিমের অবমাননা হতে পারে। কোরআন শরিফ যদি নষ্টও হয়ে যায় বা যেই পর্যায়েই থাক না কেন কোরআন যেখানে-সেখানে ফেলা যাবে না।’